রবিবার, ২৯ জানুয়ারী ২০২৩, ০৯:৪৯ অপরাহ্ন

আড়াইহাজারে যাত্রাপালা নিয়ে দুই পক্ষের ধস্তাধস্তিতে নিহত ১

আড়াইহাজার প্রতিনিধিঃ আড়াইহাজারে যাত্রাপালা আয়োজনকে কেন্দ্র করে আওয়ামী লীগের দুই পক্ষের মধ্যে ধস্তাধস্তি হয়েছে। এ সময় ধাক্কা খেয়ে রাস্তায় পড়ে যান হারিস সরকার (৪৮) নামে এক ব্যক্তি।

তিনি বাড়ি যাওয়ার পথে সড়কে অজ্ঞান হয়ে পড়েন। আশপাশের লোকজন তাকে উদ্ধার করে দ্রুত হাসপাতালে নিলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

বুধবার (৯ নভেম্বর) মধ্যরাতে উপজেলার মেঘনাবেষ্টিত কালাপাহাড়িয়া ইউনিয়নের খালিয়াচর গ্রামে এ ধস্তাধস্তির ঘটনা ঘটে। নিহত হারিস সরকার ওই এলাকার আলমাছ সরকারের ছেলে।

পুলিশ ও স্থানীয়দের সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, খালিয়ারচর পশ্চিমপাড়া অহিদের বাড়িতে বুধবার রাতে যাত্রাপালার আয়োজন করেন স্থানীয় মনির হোসেন, আহসানউল্লাহ, ইউসুফ ও তার সহয়োগীরা। যাত্রাপালার মাঝখানে বক্তব্য দেওয়ার সময় মনির পক্ষের লোকজন সাবেক চেয়ারম্যান সাইফুল ইসলাম স্বপনের নাম উচ্চারণ করলেও বর্তমান চেয়ারম্যান ফাইজুল হক ডালিমের নাম উচ্চারণ না করায় স্থানীয় আওয়ামী লীগের কর্মী মনিরের পক্ষের লোকজনের সাথে ৯ নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য খোকন সরকারের লোকজনের বাকবিতণ্ডা শুরু হয়। এক পর্যায়ে ধস্তাধস্তির ঘটনা ঘটে। এ সময় শরীরে প্রচণ্ড ধাক্কা লাগে খোকন সরকারের ভাতিজা হারিস সরকারের। পরে বাড়ি যাওয়ার পথে তিনি অজ্ঞান হয়ে সড়কে পড়ে যান। সেখান থেকে তাকে মেঘনা নদী দিয়ে ট্রলারে করে কুমিল্লা জেলা মেঘনা থানার একটি হাসপাতালে নেওয়া হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

এ ব্যপারে খোকন সরকার বলেন, মনিরের লোকজন তার ভাতিজা হারিস সরকারকে ব্যাপকভাবে কিল ঘুষি মারে। এসে সে আহত হয়। পরে হাসপাতালে নেওয়ার পথে সে মারা যায়। তিনি ঘটনাটি হত্যাকাণ্ড বলে দাবি করে মামলা করার প্রস্তুতি নিচ্ছেন বলে জানান।

মনিরের পক্ষের লোক আহসানউল্লাহ জানান, স্থানীয় যুবকরা মিলে বুধবার রাতে একটি মঞ্চ নাটকের আয়োজন করে। সেখানে কোনো ধস্তাধস্তির ঘটনা ঘটেনি। হারিস সরকার আগে থেকেই অসুস্থ ছিলো। নাটক দেখে বাড়ি কাছাকাছির যাওয়ার সড়কে হার্ট অ্যাটাকে তিনি মারা যান। কিন্তু প্রতিহিংসার বশবর্তী হয়ে খোকন মেম্বার এ ঘটনাটিকে অন্যদিকে নেওয়ার অপচেষ্টা করছেন বলে তিনি দাবি করেন।

আড়াইহাজার থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আজিজুল হক হাওলাদার জানান, খালিয়াচরে মঞ্চ নাটকে নাম বলা না বলা নিয়ে দুই পক্ষের মধ্যে ধস্তাধস্তির ঘটনা ঘটেছে। এদের মধ্যে এক পক্ষের লোক হারিস সরকার। তিনি বাড়ি যাওয়ার পথে সড়কে অজ্ঞান হয়ে পড়েন। পরে হাসপাতালে নেওয়া হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। হাসপাতাল থেকে কুমিল্লা মর্গে ময়নাতদন্তের পর লাশ পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। হারিস সরকার হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন নাকি হত্যা করা হয়েছে ময়নাতদন্ত রিপোর্ট পেলে তা পরিষ্কার জানা যাবে। ভিকটিমের পরিবারের পক্ষ থেকে এ ব্যাপারে এখনও কোনো অভিযোগ দায়ের করেনি। অভিযোগ দিলে তদন্ত করে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

নিউজটি শেয়ার করুন...

আপনার মতামত লিখুন........


© All rights reserved © 2018 Alokitonarayanganj24.net
Design & Developed by M Host BD
error: দুঃখিত রাইট ক্লিক গ্রহনযোগ্য নয় !!!