বৃহস্পতিবার, ২৯ অক্টোবর ২০২০, ০২:৫৫ পূর্বাহ্ন

করোনা সহযোগিতায় ৫ লাখ টাকায় মুন্নার জার্সি বিক্রি

আলোকিত নারায়ণগঞ্জ:করোনাভাইরাসে ক্ষতিগ্রস্থদের সহযোগিতায় একটি নয়, নিলামে জাতীয় দল তথা ঢাকা আবাহনীর সাবেক তারকা ফুটবলার মরহুম মোনেম মুন্নার দু’টি জার্সি বিক্রি হলো। অকশন ফর অ্যাকশনের মাধ্যমে শনিবার রাতে নিলামে তোলা হয় ১৯৮৯ সালে ঘরের মাঠে প্রেসিডেন্ট গোল্ডকাপজয়ী বাংলাদেশ দলের মুন্নার জার্সিটি। এই জার্সি গায়ে খেলে দেশের পক্ষে আন্তর্জাতিক ফুটবলে প্রথম শিরোপা জয় করেন মোনেম মুন্না। জাতীয় দলের সেই জার্সিটি নিলামে বিক্রি হলো ৩ লাখ টাকায়। সঙ্গে এক ভক্ত, নিলামের লাইভেই মুন্নার আবাহনীতে খেলা আরেকটি জার্সি কিনে নেন ২ লাখ ১০ হাজার টাকায়। একই সময় নিলামে তোলা হয় বাংলাদেশের সাবেক ফিফা রেফারি তৈয়ব হাসান বাবুর একটি ঐতিহাসিক জার্সি। তার এই জার্সিটি বিক্রি হয়েছে ৫ লাখ ৫৫ হাজার টাকায়।

স্থানীয় নিলামকারী প্রতিষ্ঠান অকশন ফর অ্যাকশনে শনিবার রাতে অনুষ্ঠিত নিলামে সরাসরি অংশ নেন মরহুম মোনেম মুন্নার স্ত্রী সুরভি মোনেম, রেফারি তৈয়ব হাসান বাবু। সঙ্গে লাইভ অনুষ্ঠানে আলোচনায় অংশ নেন সাবেক তারকা ফুটবলার শেখ মোহাম্মদ আসলাম, সত্যজিৎ দাস রুপু ও হায়সার হামিদ।

করোনা দুর্গতদের আর্থিক সহায়তার জন্য প্রয়াত ফুটবলার, ‘কিংব্যাক’ খ্যাত মোনেম মুন্নার একটি ঐতিহাসিক জার্সি নিলামে তোলার ঘোষণা দেন তার স্ত্রী সুরভি মোনেম। নিলামকারী প্রতিষ্ঠান অকশন ফর অ্যাকশনের মাধ্যমে নিলামে তোলা হয় মুন্নার ১৯৮৯ সালে প্রেসিডেন্ট গোল্ডকাপজয়ী ২ নম্বর লেখা জার্সিটি। যে জার্সি পরে তিনি খেলেছিলেন।

নিজেদের ফুটবল ইতিহাসে বাংলাদেশ ১৯৮৯ সালে প্রেসিডেন্ট গোল্ডকাপের মধ্যদিয়েই প্রথম আন্তর্জাতিক শিরোপা জয় করে। মুন্না ছিলেন সেই দলের সদস্য। তার স্ত্রী সুরভি মোনেম সেই ঐতিহাসিক জার্সিটি নিয়েই করোনার বিরুদ্ধে লড়াইয়ে নামেন।

নিলামে জার্সিটি ৩ লাখ টাকায় কিনে নিয়েছেন কার্নিভাল ইন্টারনেটের স্বত্ত্বাধিকারী। কিন্তু নিলাম চলাকালীন মাহবুব নামে এইচএসবিসির সিইও, যিনি আবাহনী এবং মুন্নার ভক্ত, আরেকটি জার্সি চেয়ে বসেন সুরভি মোনেমের কাছে। সেখান থেকেই আবাহনীর হয়ে মুন্নার ব্যবহার করা ২ নম্বর জার্সিটি মাহবুব কিনে নেন ২ লাখ ১০ হাজার টাকায়।

একই সঙ্গে নিলামে ওঠে সাবেক ফিফা রেফারি তৈয়ব হাসান বাবুর একটি ঐতিহাসিক জার্সি। দেশের সাবেক এই তারকা রেফারি ২০১৩ সালে নেপালে প্রথম দক্ষিণ এশিয়ান হিসেবে পরিচালনা করেছিলেন সাফ চ্যাম্পিয়নশিপের ফাইনাল ম্যাচ। তিনি সেই ঐতিহাসিক জার্সিটি নিলামে তোলেন করোনাভাইরাস আতঙ্কে ক্ষতিগ্রস্থদের সহায়তার জন্য। যার দাম আগেই ৫ লাখ ৫৫ হাজার টাকা পর্যন্ত বলে রেখেছিলেন সাতক্ষীরা চেম্বার অব কমার্সের চেয়ারম্যান নাসিম ফারুক খান মিঠু। শেষ পর্যন্ত তিনিই এই দামে জার্সিটি কিনে নেন।

নিলামে দুই জার্সি বিক্রি হওয়ায় আল্লাহর দরবারে শুকরিয়া প্রকাশ করেছেন মরহুম মোনেম মুন্নার স্ত্রী সুরভী মোনেম।

তিনি বলেন,‘আলহামদুলিল্লাাহ, আমি খুশি। আমি অনেক অনেক খুশি হয়েছি। আমার উদ্দেশ্য গরীব মানুষকে সাহায্য করা। জার্সি যে দামে বিক্রি হয়েছে তাতে অসহায়দের সহযোগিতা করা আমার জন্য সহজ হবে। এ কারণে আল্লাহর কাছে শুকরিয়া।’

 উল্লেখ্য, ফুটবল তারকা মোনেম মুন্না ছিলেন নারায়ণগঞ্জের বন্দর উপজেলার কৃতি সন্তান। 
নিউজটি শেয়ার করুন...

আপনার মতামত লিখুন........


© All rights reserved © 2018 Alokitonarayanganj24.net
Design & Developed BY N Host BD
error: দুঃখিত রাইট ক্লিক গ্রহনযোগ্য নয় !!!