রবিবার, ২৫ অক্টোবর ২০২০, ১১:২৭ পূর্বাহ্ন

না’গঞ্জের রাজনীতিতে তৃনমূল কর্মীদের মাঝে বিরাজ করছে হতাশা!

বিশেষ প্রতিনিধিঃনারায়ণগঞ্জের রাজনীতিতে ভাটা পড়েছে। রাজনীতিকরা এখন নিজেকে নিয়ে ব্যস্ত হয়ে পড়েছেন। একাদশ সংসদ নির্বাচনের পর ক্ষমতাসীন দলের নেতারা বিভিন্ন সেক্টর নিয়ন্ত্রনে ব্যস্ত সময় পার করছে। ইতিমধ্যে বিভিন্ন সেক্টর নিয়ন্ত্রন নিয়ে ক্ষমতাসীন দলের নেতাদের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে যা আগামীতে আরো তীব্র আকারে রূপ নিতে পারে বলে রাজনৈতিক বিশ্লেষকরা মনে করছেন।

অপর দিকে, বিএনপির নেতারা দলীয় সংগঠনিক উন্নতির কথা চিন্তা না করে যে যার মত করে নিজস্ব অবস্থানে থেকে মামলা থেকে রেহাই পেতে চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন। একাদশ সংসদ নির্বাচনের পূর্বে বিভিন্ন মামলার আসামী হয়ে আত্মগোপনে চলে যাওয়া বিএনপির নেতারা এখন প্রকাশ্যে আসতে শুরু করেছেন। আদালতে হাজির হয়ে মামলার জামিন নিচ্ছেন। কিন্তু জামিন পেতে বিএনপির নেতারা নতুন কোন মামলায় জড়াতে চাই না বলেই বিএনপির রাজনীতিতে নিস্ক্রীয় হয়ে পড়েছেন তারা। এতে করে নারায়ণগঞ্জ বিএনপির মাঠ পর্যায়ের নেতাকর্মীরা বিপাকে পড়েছেন। নেতৃত্ব শূণ্যতায় তারাও রাজনীতিতে সক্রিয় হতে পারছেন না। জানাগেছে, ভাগ ভাটোয়ারা নিয়ে ক্ষমতাসীন দলের নেতাদের দ্ধদ্ব ও বিএনপিতে নেতৃত্ব শূন্যতার সাথে যুক্ত হয়েছে মামলা আতঙ্ক। সার্বিক দিকে দিয়ে ঝিমিয়ে পড়েছে নারায়ণগঞ্জে বিএনপির রাজনীতি। নেতারা মাঠে নেই প্রাণহীন এ জেলার রাজনীতি। নেতারা নিষ্কৃয় থাকায় নীরব দলের কর্মী সমর্থকরাও। নির্বাচনের আগে বিভিন্ন থানা পুলিশের দায়ের করা মামলায় জামিন না নেয়ায় গ্রেফতার আতঙ্কে বিএনপির নেতাদের মাঠে সক্রিয়ভাবে দেখা যাচ্ছে না। পাশাপাশি নির্বাচনে ভরাডুবিতে অনেকটা চেইন অব কমান্ড ভেঙ্গে পড়েছে নারায়ণগঞ্জ বিএনপির। এদিকে সরকারী দলের ক্ষমতাসীন দলের নেতারা নির্বাচনে সক্রিয় ভূমিকায় থাকলেও নির্বাচনের পর বিভিন্ন সেক্টর নিয়ন্ত্রন নিয়ে কোন্দল শুরু হয়েছে। এ নিয়ে হতাশা ও ক্ষোভের অন্ত নেই তৃণমূলের নেতাকর্মীদের। নারায়ণগঞ্জের প্রভাবশালী কয়েকজন নেতা এখন তাদের সাংগঠনিক কার্যক্রমে তাদের দেখা যায় না। ফলে বর্তমান রাজনীতি এখন অনেকটাই নিস্ক্রীয়। সূত্র বলছে, টানা তৃতীয়বার ক্ষমতায় আসায় নারায়ণগঞ্জে ক্ষমতাসীন দলের অনেক নেতারা রাজনীতিতে এখ ব্যবসায় পরিনত করেছে। ব্যবসায়ীক ফায়দার কারণে সংঘর্ষের ঘটনা দিন দিন বাড়ছে। নির্বাচনের পর এমপি শপথ গ্রহনের পর পরই রাজনৈতিক আদলে ব্যবসায়ীরা বিভিন্ন বৈধ ও অবৈধ সেক্টর নিয়ন্ত্রনে মরিয়া হয়ে উঠে। এব্যাপারে নারায়ণগঞ্জ আওয়ামীলীগের শীর্ষ নেতারা নীরব ভূমিকায় থাকায় নারায়ণগঞ্জে আওয়ামীলীগের রাজনীতিতে ভয়াবহ পরিস্থিতি বিরাজ করছে। অপরদিকে, বিএনপির নেতারা আওয়ামীলীগের ন্দ্বদ্বকে কাজে লাগিয়ে নিজেদের অবস্থান শক্ত করার সুযোগ থাকলেও সেই সুযোগকে কাজে না লাগিয়ে নারায়ণগঞ্জ বিএনপির নেতারা নিজেদের নিয়ে এখন ব্যস্ত সময় পাড় করছেন।

নিউজটি শেয়ার করুন...

আপনার মতামত লিখুন........


© All rights reserved © 2018 Alokitonarayanganj24.net
Design & Developed BY N Host BD
error: দুঃখিত রাইট ক্লিক গ্রহনযোগ্য নয় !!!