সোমবার, ০৩ অক্টোবর ২০২২, ০১:০৯ অপরাহ্ন

জেলা পরিষদে পুনরায় আনোয়ার হোসেনকে দেখতে চান নাঃগঞ্জবাসী 

মোঃ মনির হোসেন :
একটা সময় ছিল নারায়ণগঞ্জের মানুষ জেলা পরিষদ কি তা বুঝতো না, জানতো ও না, এ বিষয়ে কারো কোনো তেমন আগ্রহ দেখা যেত না, কিন্তু ২০১৬ সালের জেলা পরিষদ নির্বাচনে নারায়ণগঞ্জ মহানগর আওয়ামীলীগের সভাপতি আনোয়ার হোসেন চেয়ারম্যান নির্বাচিত হওয়ার পর থেকে জেলা পরিষদের উন্নয়ন মানুষের নজরে এসেছে।
তাই উন্নয়নের ধারা অব্যহত রাখতে নারায়ণগঞ্জ জেলা পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান আনোয়ার হোসেনকে পুনরায় চেয়ারম্যান হিসেবে দেখতে চান নারায়ণগঞ্জ জেলাবাসী। জেলার উন্নয়ন মূলক কর্মকান্ডের জন্য আনোয়ার হোসেন ছাড়া কোন বিকল্প নেই বলে মনে করছেন নারায়ণগঞ্জের আপামর জনতা ।
স্থানীয় এক আওয়ামীলীগ নেতা জানান, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা যোগ্য মানুষ আনোয়ার হোসেনকে জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান নির্বাচিত করেছিলেন। তার সঠিক সিদ্ধান্তে জেলা পরিষদের অর্থায়নে এই জেলাতে অনেক উন্নয়ন হয়েছে।বহু মানুষ উপকৃত হয়েছে। জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আনোয়ার ভাইয়ের কাছে এলাকার উন্নয়নে যা চেয়েছি, তা পেয়েছি। তিনি একজন সফল চেয়ারম্যান, তার উন্নয়নের ছোঁয়া লেগেছে প্রতিটি গ্রামে, প্রতিটি ইউনিয়নে, প্রতিটি থানাতে । তাই আমরা আবার ও তাকে নারায়ণগঞ্জ জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান হিসেবে দেখতে চাই।
এব্যাপারে নারায়ণগঞ্জ জেলা পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান . বর্তমান প্রশাসক ও মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি আনোয়ার হোসেন জানান, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা নেতৃত্বে বাংলাদেশ আজ বিশ্বের উন্নত দেশের সাথে তাল মিলিয়ে এগিয়ে যাচ্ছে। মহামারী করোনা সময়েও প্রধানমন্ত্রীর সঠিক সিদ্ধান্তে দেশের মানুষকে ভয়াবহ পরিস্থিতি থেকে বাঁচিয়ে দিয়েছেন। মানুষের মধ্যে আল্লাহ বিরাজমান, মানুষকে খুশি রাখলে আল্লাহকে খুশি করা সম্ভব। জননেত্রী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আমাকে মানুষের কল্যাণে কাজ করতে বলেছেন। তার বদৌলতে আজ জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান হয়ে মানুষের জন্য কাজ করার সুযোগ পেয়েছি। এই নারায়ণগঞ্জের মত স্থানে রাজনীতি করে, এই পর্যন্ত পৌঁছেছি কেবল আমার নেত্রীর কারণে। আমি কেবল শেখ হাসিনার কর্মী। তিনি আরো জানান, ‘বঙ্গবন্ধুর ৭ মার্চের ভাষণ আওয়ামীলীগের রাজনীতিতে উদ্বুদ্ধ হয়ে আজ ছাত্রলীগ থেকে আওয়ামী লীগের সভাপতি হয়ে মানুষের পক্ষে কাজ করে যাচ্ছি । জাতির জনক বঙ্গবন্ধু হত্যার প্রতিবাদ করেছি, জেল খেটেছি, নির্যাতিত হয়েছি।’ তারই কন্যা জননেত্রী শেখ হাসিনাকে আমি বড় বোনের মতো শ্রদ্ধা করি।
তিনি আরও জানান, আমার সময় জেলা পরিষদ শুধু শহর নয় পাশাপাশি অজোপাড়া গাঁয়ের উন্নয়ন করেছে । ফতুল্লার বক্তাবলী দীর্ঘদিনের অবহেলিত রাস্তাটি জেলা পরিষদের অর্থায়নে করা হয়েছে । এ ছাড়াও নারায়ণগঞ্জের সাত থানা এলাকায় জেলা পরিষদ কাজ করেছে। যদি জননেত্রী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আমাকে নমিনেশন দেন ইনশাআল্লাহ আবার জয়ী হবো।
নির্বাচন কমিশন (ইসি) সূত্রে জানাযায়, ইভিএম পদ্ধতিতে নারায়ণগঞ্জসহ দেশের ৬১টি জেলা পরিষদের ভোট গ্রহণ আগামী ১৭ অক্টোবর অনুষ্ঠিত হবে। নির্বাচন কমিশন (ইসি) গত ২৩ আগস্ট এ নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা করেছে। ঘোষিত তফসিল অনুযায়ী মনোনয়নপত্র জমা দেয়ার শেষ সময় ১৫ সেপ্টেম্বর। মনোনয়নপত্র বাছাই ১৮ সেপ্টেম্বর, মনোনয়নপত্র প্রত্যাহারের শেষ সময় ২৫ সেপ্টেম্বর এবং প্রতীক বরাদ্দ ২৬ সেপ্টেম্বর। ভোট গ্রহণ সতেরো অক্টোবর সকাল ৯ টা হতে বেলা ২ টা পর্যন্ত চলবে। সংশ্লিষ্ট জেলা প্রশসকরা এই নির্বাচনের রিটার্নিং কর্মকর্তার দায়িত্ব পালন করবেন।

এদিকে নারায়ণগঞ্জ জেলা পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে আওয়ামী লীগের একাধিক মনোনয়ন প্রত্যাশী মাঠে রয়েছেন। তারা হলেন বর্তমান জেলা পরিষদের প্রশাসক ও নারায়ণগঞ্জ মহানগর আওয়ামীলীগের সভাপতি আনোয়ার হোসেন, নারায়ণগঞ্জ জেলা পরিষদের সাবেক প্রশাসক ও বর্তমান জেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি আব্দুল হাই, সহ আরো অনেকে।
সূত্র মতে, জেলা পরিষদ নির্বাচনের ভোটার নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের মেয়র, কাউন্সিলরগণ, পৌরসভার মেয়র ও কাউন্সিলরগণ, উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও ভাইস চেয়ারম্যান এবং ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যানসহ মোট ভোটার ৬১০টি। আর জেলা পরিষদের একজন চেয়ারম্যান এবং পাঁচটি সদস্য ও দুইটি সংরক্ষিত মহিলা সদস্য পদে একটি কেন্দ্রে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। নারায়ণগঞ্জ জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা মতিয়ুর রহমান বলেন, জেলা প্রশাসক জেলা পরিষদ নির্বাচনে রিটার্নিং কর্মকর্তার দায়িত্ব পালন করবেন এবং ভোট হবে ইভিএমে। নির্বাচনে জেলার মোট ভোটার ৬১০ জনের মধ্যে পুরুষ ৪৬৬ . মহিলা ভোটার রয়েছে ১৪৪টি।

নিউজটি শেয়ার করুন...

আপনার মতামত লিখুন........


© All rights reserved © 2018 Alokitonarayanganj24.net
Design & Developed by M Host BD
error: দুঃখিত রাইট ক্লিক গ্রহনযোগ্য নয় !!!