শনিবার, ০৮ অগাস্ট ২০২০, ০৪:৩০ অপরাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম :
পাকিস্তানে ক্রিকেট ম্যাচে সন্ত্রাসী হামলা ওসি প্রদীপসহ ৭ আসামিকে র‍্যাবের জিজ্ঞাসাবাদ শুরু সিনহা হত্যা: ওসি প্রদীপসহ ৯ আসামিকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ আড়াইহাজারে দুই গ্রুপের সংঘর্ষে কৃষক নিহত বুড়িগঙ্গা ও ধলেশ্বরী নদীর পানির স্রোতে ফতুল্লায় দুটি ভবন ধসে পড়েছে সিনহা হত্যা: ওসি প্রদীপসহ ৯ পুলিশ সদস্যের বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা র‌্যাবের হাতে ২৫ হাজার ৪শ’ পিস ইয়াবা ট্যাবলেটসহ গ্রেপ্তার ৫ বুড়িগঙ্গা নদীর পানি বেড়ে ফতুুল্লায় দেড় শতাধিক বাড়িঘর প্লাবিত সেনাবাহিনীর বিগ্রেডিয়ার জেনারেল পরিচয়ধারী প্রতারক গ্রেফতার ফতুল্লায় পুকুর থেকে সিএনজিসহ যুবকের মরদেহ উদ্ধার

ফতুল্লার হাটে ক্রেতা আছে গরু নেই

আলোকিত নারায়ণগঞ্জ:পবিত্র কোরবানির ২৪ ঘন্টার কম বাকি থাকলেও এর আগেই বৃহস্পতিবার রাত থেকে ফতুল্লার  কোরবানির পশুর হাট প্রায় গরু শূন্য।

ক্রেতদের তীব্র চাপ থাকলেও হাটগুলোতে গরুর সংখ্যা ছিল খুবই কম। যে কয়েকটি গরু ছিল তা নিয়ে রীতিমতো ক্রেতাদের মাঝে ছিল কাড়াকাড়ি। দাম কোনো ব্যাপার ছিল না গরু পাওয়াটাই ছিল সৌভাগ্যের ব্যাপার। তাই কে গরুর রশি ধরতে পারেন তাই নিয়ে ছিল প্রতিযোগিতা।

ফতুল্লা,আলীগঞ্জ,পাগলা তালতলা,সাইনবোর্টসহ বেশ কয়েকটি পশুর হাটে এই চিত্র দেখা গেছে।

তবে গতকাল বৃহস্পতিবার পর্যন্ত হাটগুলোতে ছিল ভিন্ন চিত্র। অনেক ব্যাপারি মহামারি করোনার কারনে বিক্রি নাও হতে পারে এই আতঙ্কে কম দামে গরু ছেড়ে দিয়েছেন। এমনই একজন হলেন সোলেমান। তিনি ১০টি গরু নিয়ে এসেছেন ফতুল্লার হাটে। জানালেন সব ব্যাপারি ও খামারির চেহারায় গরু বিক্রি না হওয়ার চাপা আতঙ্ক। আমিও ভয় পেয়ে গেলাম। মহামারি করোনার কারণে যদি বিক্রি না হয় তা হলে ফেরত নিতে আবার টাকা লাগবে। এতগুলো গরুকে খাওয়াতেও অনেক খরচ। তাই কোনোটিতে সামান্য লাভ কোনোটিতে লাভ না কসে লসে ছেড়ে দিয়েছি।

ফতুল্লার অপর হাট আলীগঞ্জ থেকে গতকাল দুপুরে গরু কিনেছেন হাবিব ও সাইদুল ইসলাম। তারা জানালেন, ‘আগে আগে গরু কিনলাম। কোনো ঝুঁকি নিলাম না। চাঁদের রাতে অনেক সময় দাম পড়ে যায়। ব্যাপারিদের দুঃখ বেড়ে যায়। এটা ভালো লাগে না। আবার গরুর টান পড়ে গেলে আরেক যন্ত্রণা। তারা বললেন, যে গরু ৬৫ হাজার টাকায় কিনেছি সেই মানের গরু দেখলাম কেউ ৯০ কেউ ৯৫ হাজার টাকায় কিনেছেন। এবার হাটে দামের কোনো আগামাথা নেই।’

ব্যবসায়ী রফিকুল ইসলাম। থাকেন ফতুল্লা রেলষ্টেশন এলাকায়। পরিচিত একজন গতকাল বিকালে মোবাইলে জানালেন হাটে গরুর টান। দ্রুত তিনি ফতুল্লায় গেলেন। একটি গরুও কিনে ফেললেন তার ভাই এমদাদুল। বললেন, আলহামদুলিল্লা গরু পেয়েছি এতেই খুশি। দাম তো আল্লার রাস্তায় কোরবানি। তবে গত বছর এই মানের গরু ৭০ বা ৭৫ হাজার টাকার বেশি ছিল না। রাতে যারা কেনার নিয়ত করেছেন তারা হয়ত পাবেন না। তার ধারণা সকালের পর আবার গরু আসবে।’

এদিকে লালখাঁর সেকান্দার। তিনি গতকাল রাতে আলীগঞ্জ হাট থেকে গরু কেনার নিয়ত করেছিলেন। কিন্তু কিনতে পারেননি। কয়েকটি হাটে গুরে জানালেন শুক্রবার কিনবেন। দাম একটু কমতে পারে। তিনি জানালেন, তালতলা হাটে গিয়ে দেখা গেছে পুরো হাঁটই প্রায় খালি। বাঁশ ও খুঁটিগুলোতে কোনো গরু নেই। যে কয়টি গরু রয়েছে সেগুলোর দাম বাড়িয়ে দিয়েছেন বিক্রেতারা। তালতলা হাটে মাঝারি সাইজের গরুর দামও চড়া। বড় বড় গরুগুলোর ক্রেতা সেভাবে দেখা যায়নি। মাঝারি ধরনের প্রায় সব গরুই শেষ। বেশ কয়েকজন ব্যবসায়ী বলেছেন গরু শেষ। তারা আরো গরু আনছেন।

এদিকে নারায়ণগঞ্জের অন্য হাটের একই অবস্থা ছিল বলে জানা গেছে। কোরবানির গরুর জন্য হাহাকার পড়ে গেছে। শেষ মুহূর্তে কোরবানির পশুর জন্য হন্য হয়ে ঘুরছে মানুষ। ছুটছেন একবাজার থেকে অন্য বাজারে। কোথাও কাঙ্খিত গরুর দেখা মিলছে না। যে অল্প সংখ্যক আছে তার দামও চড়া। বাজারে গরুর চেয়ে ক্রেতা বেশি ছিল নগরের প্রতিটি হাটে।

নিউজটি শেয়ার করুন...

আপনার মতামত লিখুন........


© All rights reserved © 2018 Alokitonarayanganj24.net
Design & Developed BY N Host BD
error: দুঃখিত রাইট ক্লিক গ্রহনযোগ্য নয় !!!