বৃহস্পতিবার, ২২ অক্টোবর ২০২০, ০৬:১৮ অপরাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম :

বন্দরে ঘুমের ওষুধ খাওয়ে ফুফাতো বোনকে ধর্ষণের অভিযোগ

আলোকিত নারায়ণগঞ্জ:নারায়ণগঞ্জে নানির বাড়িতে বেড়াতে এসে ধর্ষণের শিকার হয়েছে এক কিশোরী। কোমল পানীয়র সঙ্গে ঘুমের ওষুধ জাতীয় দ্রব্য খাইয়ে নানিকে অচেতন করে কিশোরীকে ধর্ষণ করে মামাতো ভাই জাহিদ হোসেন। এতে সহায়তা করে অপর দুজন।

সোমবার দুপুরে নারায়ণগঞ্জের বন্দর থানার নবীগঞ্জে নানির বাড়িতে বেড়াতে এসে ধর্ষিত  হওয়ার বর্ণনা আদালতে দিয়েছে ১৪ বছর বয়সী মেয়েটি। সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট ফাহমিদা খাতুন সেই জবানবন্দি ২২ ধারায় রেকর্ড করেছেন।

অভিযুক্ত জাহিদ (২১) বন্দরের নবীগঞ্জ বড় বাড়ি এলাকার রুহুল আমিনের ছেলে। এ ঘটনায় সহযোগীরা করেছেন জাহিদের ছোট ভাই আসিফ ও খালাতো ভাই রোহান।

গত ১৮ সেপ্টেম্বর বন্দরের নবীগঞ্জ এলাকায় নানি বাড়িতে বেড়াতে আসে মেয়েটি। গত ৩ অক্টোবর সন্ধ্যা সাড়ে ৭ টার বাড়ি ফাঁকা পেয়ে মামাতো ভাই মেয়েটিকে ধর্ষণ করে। গত রোববার ৩ জনকে আসামি করে বন্দর থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে ধর্ষণ ও ধর্ষণের সহযোগিতায় একটি মামলা দায়ের করেন মেয়েটির মা।

অভিযোগে উল্লেখ করা হয়, অনেক দিন ধরেই আসামি জাহিদ আমার মেয়েকে কুপ্রস্তাব দিয়ে আসছিলেন। আমার মেয়ে রাজি না হওয়ায় গত ৩ অক্টোবর আমার মা ও আমার মেয়েকে ঘুমের ওষুধ মেশানো সেভেনআপ পান করান ৩ জন। অচেতন হয়ে পড়তেই পাশের রুমে নিয়ে আমার মেয়েকে জোরপূর্বক ধর্ষণ করে জাহিদ। আর আসিফ ও রোহান আমার মেয়ের হাত ধরে রাখে। এই সময় আমার মেয়ের চিৎকারে পªতিবেশী রমজান ও রহমান নামের দুজন এগিয়ে আসলে আসামিরা দৌড়ে পালিয়ে যায়।

মামলাটির তদন্তকারী কর্মকর্তা বন্দর থানার সাব-ইন্সপেক্টর (নিরস্ত্র) মোদাচ্ছের হোসেন দেশ রূপান্তরকে জানান, মামলা গ্রহণ করে মেয়েটির ২২ ধারায় জবানবন্দি নেওয়া হয়েছে। অভিযুক্ত আসামিরা মেয়েটির মামাতো ভাই, তাদের গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে।

নিউজটি শেয়ার করুন...

আপনার মতামত লিখুন........


© All rights reserved © 2018 Alokitonarayanganj24.net
Design & Developed BY N Host BD
error: দুঃখিত রাইট ক্লিক গ্রহনযোগ্য নয় !!!