শনিবার, ১২ অক্টোবর ২০১৯, ০৫:৪৬ পূর্বাহ্ন

ব্যাটসম্যানদের আত্মহত্যায় শিরোপা বঞ্চিত বাংলাদেশ

আলোকিত নারায়ণগঞ্জ: এশিয়ান ক্রিকেট কাউন্সিল (এসিসি) আয়োজিত অনূর্ধ্ব-১৯ এশিয়া কাপের ফাইনালে ভারতের কাছে ৫ রানে হেরে শিরোপা বঞ্চিত হলো বাংলাদেশ। শ্বাসরুদ্ধকর ফাইনালে ভারতের দেয়া ১০৭ রানের লক্ষ্যে ব্যাট করতে নেমে ব্যাটসম্যানদের ব্যর্থতায় ১০২ রানেই অলআউট হয় বাংলাদেশ।

ম্যাচে ভারতের দেয়া মাত্র ১০৭ রানের জবাবে ব্যাট করতে নেমে ব্যাটিং বিপর্যয়ে পড়ে বাংলাদেশ।  মাত্র ১৩ রানেই আউট হয়ে প্যাভিলিয়নে ফেরেন ওপেনার তানজিদ হাসান। এরপর ১৩ রানেই আবারও জোড়া ধাক্কা খেয়ে ৩ উইকেট হারিয়ে বসে আকবর আলীর দল। এরপর দলীয় ১৬ রানে আউট আউট হন সর্বশেষ ম্যাচে সেঞ্চুরি হাঁকানো মাহমুদুল হাসান জয়।

অধিনায়ক আকবার আলী একপাশ ধরে রাখলেও বাকিরা তাকে সঙ্গ দিতে পারেনি। ৪০ রানে আবারও শাহাদাত হোসেনের উইকেট হারায় বাংলাদেশ।  ৫১ রানে শামিম হাসান আউট হয়ে আবারও দলকে চেপে ফেলেন। ৫১ রান তুলতে ৬ উইকেট হারিয়ে হারের শঙ্কায় পড়ে বাংলাদেশ। এরপর আকবর আলী ও মৃত্যুঞ্জয় চৌধুরীর ২৩ রানের জুটি দলকে আশার আলো দেখায়।

তবে ৭৮ রানেই এ দুইজন আউট হলে ভারতের কাছে আরও একটি ফাইনালের হারের খুব কাছে চলে যায় বাংলদেশ। অষ্টম উইকেটে তানজিম হাসান সাকিব ও রাকিবুল ইসলাম ২৩ রানের জুটি গড়ে দলকে জয়ের খুব কাছে নিয়ে যান। তবে দলীয় ১০১ রানে আউট হন সাকিব। এর ১ রান পর অলআউট হয়ে যায় বাংলাদেশের যুবারা। ফলে ৫ রানে ফাইনাল হেরে শিরোপা বঞ্চিত হলো বাংলাদেশ অনূর্ধ্ব-১৯ দল।

ভারতের হয়ে আকাশ সিং ৩টি ও অথর্ভ আনকোলেকার ৫টি উইকেট শিকার করেন।

এর আগে শ্রীলঙ্কার প্রেমাদাসা স্টেডিয়ামে সকাল ১০টায় শুরু হওয়া ম্যাচের শুরু থেকেই সাকিব-মৃত্যুঞ্জয়-রাকিবুল ও শামীমের দুর্দান্ত বোলিংয়ে চাপে পড়ে ভারত। শেষ পর্যন্ত ২৪.৪ ওভারে ১০৬ রান তুলতে সক্ষম হয় ধ্রুভ জুরেলরা।

দলীয় ৮ রানেই ভারতীয় যুবারা হারায় মূল্যবান তিন উইকেট। এরপর অবশ্য অধিনায়ক জুরেল ও শাশ্বত রাওয়াত রান তোলার চেষ্টা চালান; কিন্তু দলীয় ৫৩ রানে শামিম হাসানের এলবিডব্লিওর শিকার হন শাশ্বত রাওয়াত। তিনি ফেরে ১৯ রানে।

এরপর উইকেটে এসেই বিদায় নেন বরুন লাভান্ডে। ৫৩ রানে ৫ উইকেট হারিয়ে বিপদে পড়ে ভারত। তবে অধিনায়ক ধ্রুভ টিকে ছিলেন। তিনি অথর্ভ আনকোলেকারর সঙ্গে জুটি গড়ার চেষ্টা করলে মাহমুদুল হাসান জয়ের দুর্দান্ত থ্রোতে রানঅউটের ফাঁদে পড়েন আনকোলেকার। ৬১ রানে এই ব্যাটসম্যানের বিদায়ের পর পরই অধিনায়ক ধ্রুভও ফিরে যান। যাওয়ার আগে দলকে ৩৩ রান দিয়ে যান।

দলীয় ৬২ রানে ৬ উইকেটের পতনের পর শেষের চার উইকেটে ভারতের যুবারা কেবল তুলতে পেরেছে ৪৪ রান। বাংলাদেশের হয়ে তিনটি উইকেট পেয়েছেন শামীম ও মৃত্যুঞ্জয়। একটি করে উইকেট পান সাকিব, শাহীন ও তৌহিদ।

নিউজটি শেয়ার করুন...

আপনার মতামত লিখুন........


© All rights reserved © 2018 Alokitonarayanganj24.net
Design & Developed BY N Host BD
error: দুঃখিত রাইট ক্লিক গ্রহনযোগ্য নয় !!!