সোমবার, ০৩ অক্টোবর ২০২২, ০৩:২০ অপরাহ্ন

লন্ডনে শেখ হাসিনার সঙ্গে লেবার পার্টি প্রধানের সাক্ষাৎ

শেখ হাসিনার সঙ্গে সাক্ষাৎ করেন স্যার কেয়ার স্টারমার

স্পেশাল করেসপন্ডেন্টঃ যুক্তরাজ্য সফররত প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে সাক্ষাৎ করেছেন দেশটির বিরোধী দলের নেতা এবং লেবার পার্টির প্রধান স্যার কেয়ার স্টারমার। শনিবার (১৭ সেপ্টেম্বর) স্থানীয় সময় সকালে লন্ডনের ক্ল্যারিজ হোটেলে প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে সাক্ষাৎ করেন তিনি।

প্রধানমন্ত্রীর প্রেস উইং জানায়, সাক্ষাৎকালে শেখ হাসিনা এবং কেয়ার স্টারমার রোহিঙ্গা সংকট, দুই দেশের সম্পর্ক, বাণিজ্য ও সহযোগিতাসহ বিভিন্ন বিষয়ে আলোচনা করেন।

এ সময় লেবার পার্টির প্রধান দুই দেশের মধ্যেকার সুসম্পর্কের কথা তুলে ধরে বলেন, বাংলাদেশ ও যুক্তরাজ্যের মধ্যেকার সম্পর্ক চমৎকার। ব্রিটিশ-বাংলাদেশ অভিবাসীদের দ্বারা এই বন্ধন আরও শক্তিশালী হয়েছে।

ব্রিটেনের সদ্য প্রয়াত রাণী দ্বিতীয় এলিজাবেথের রাষ্ট্রীয় অন্ত্যেষ্টিক্রিয়ায় যোগ দিতে চার দিনের সফরে লন্ডনে অবস্থানরত প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা রাণীর মৃত্যুতে তার গভীর সমবেদনার কথা পুর্নব্যক্ত করেন। রাণীর স্মৃতির প্রতি শ্রদ্ধা জানানোয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে ধন্যবাদ দেন স্টারমার।

সাক্ষাতকালে লেবার পার্টি থেকে যুক্তরাজ্যের সাবেক প্রধানমন্ত্রী স্যার হ্যারল্ড উইলসনের সঙ্গে বাংলাদেশের জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের বৈঠক এবং ব্যক্তিগত সম্পর্কের কথা স্মরণ করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও লেবার পার্টির প্রধান কেয়ার স্টারমার।

বাংলাদেশের স্বাধীনতার সূবর্ণজয়ন্তী এবং জাতির পিতা বঙ্গবন্ধুর শততম জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে বাণীর জন্য লেবার পার্টির নেতাকে ধন্যবাদ জানান শেখ হাসিনা।

২০১৬ সালে বাংলাদেশ সফর এবং সে সময় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে বৈঠকের কথা স্মরণ করেন স্টারমার। যুক্তরাজ্যে লেবার পার্টি থেকে ক্রমবর্ধমানে বাংলাদেশি বংশোদ্ভূতরা নির্বাচিত হওয়ায় সন্তোষ প্রকাশ করেন তিনি।

কেয়ার স্টারমার বলেন, লেবার পার্টি তরুণ প্রজন্মের নেতাদের তুলে আনা এবং তৈরির জন্য কাজ করছে। যা ব্রিটিশ এবং বাংলাদেশি তরুণদের আরও বেশি আকৃষ্ট করবে।

বৈঠকে দুই নেতা বিশ্বে রাশিয়া-ইউক্রেন যুদ্ধের প্রভাব নিয়েও আলোচনা করেন। দ্বিপাক্ষিক বাণিজ্যিক সম্পর্কের ওপর চলমান মূল্যস্ফীতির চাপ এবং জীবনযাত্রার ব্যয় সংকটের প্রভাব নিয়ে আলোচনা করেন তারা।

এ সময় শেখ হাসিনা সারা বিশ্বের সাধারণ মানুষকে খাদ্য, জ্বালানি ও আর্থিক নিরাপত্তাহীনতা থেকে রক্ষা করতে আলোচনার মাধ্যমে এ সংঘাতের নিষ্পত্তির ওপর গুরুত্বারোপ করেন। যুদ্ধকে কেন্দ্র করে আরোপিত নিষেধাজ্ঞাগুলো উন্নয়নশীল দেশের জনগণের ওপর যে প্রভাব ফেলছে তা পর্যালোচনা করার ওপরও গুরুত্বারোপ করেন তিনি।

লেবার পার্টির নেতা বলেন, তারা যুক্তরাজ্য এবং পশ্চিমের বড় বিক্রেতাদের তৈরি পোশাক প্রস্তুতকাদের সঙ্গে ব্যয় ভাগ করে নেওয়ার পক্ষে সমর্থন অব্যহত রাখবেন। তিনি শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশের কোভিড-১৯ মহামারি পরিস্থিতি মোকাবিলার প্রশংসা করেন।

বাংলাদেশের মতো জলবায়ু ঝুঁকিতে থাকা দেশগুলোর সঙ্গে কাজ করতে লেবার পার্টির অঙ্গীকারের কথা পুর্নব্যক্ত করেন লেবার পার্টির নেতা। জলবায়ু ইস্যুতে দুই দেশের মধ্যকার অংশদারিত্ব সম্প্রসারণের প্রশংসা করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

তিনি মিয়ানমার থেকে জোরপূর্বক বিতাড়িত রোহিঙ্গী জনগোষ্ঠীর দীর্ঘস্থায়ী উপস্থিতি বাংলাদেশের জন্য ক্রমবর্ধমান বোঝা হয়ে দাঁড়ানোর কথাও উল্লেখ করেন।

সম্প্রতি বাংলাদেশের সীমান্তের কাছাকাছি সশস্ত্র সংঘাত বৃদ্ধির বিষয়েও আলোচনা করেন তারা। শেখ হাসিনা বলেন, বাংলাদেশ তার ভূখণ্ডের ভিতরে সংঘাতের প্রভাব ছড়িয়ে পড়া সত্ত্বেও সর্বোচ্চ ধৈর্য প্রদর্শন করছে।

এরপর একই স্থানে প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে সাক্ষাৎ করেন মেরিলেবোনের লর্ড স্বরাজ পল। যুক্তরাজ্যের হাউস অব লর্ডসের প্রবীণ এ সদস্য প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বের প্রশংসা করেন। ব্যবসা এবং শিক্ষা ক্ষেত্রে দুই দেশের মধ্যকার অংশদারিত্ব আগামীতে আরও বাড়বে বলে আশা প্রকাশ করেন তিনি।

এরপর শেখ হাসিনা ব্রিটিশ সংবাদ মাধ্যম বিবিসিকে একটি সাক্ষাতকার দেন। সাক্ষাতকারে তিনি রাণী দ্বিতীয় এলিজাবেথের সঙ্গে তার ব্যক্তিগত স্মৃতি এবং কমনওয়েলথ পরিবারের জন্য রাণীর আজীবন অবদানের কথা স্মরণ করেন।

নিউজটি শেয়ার করুন...

আপনার মতামত লিখুন........


© All rights reserved © 2018 Alokitonarayanganj24.net
Design & Developed by M Host BD
error: দুঃখিত রাইট ক্লিক গ্রহনযোগ্য নয় !!!