মঙ্গলবার, ২৯ নভেম্বর ২০২২, ০৫:২০ অপরাহ্ন

সোনারগাঁওয়ে আ. লীগ-বিএনপির সংঘর্ষের ঘটনায় মামলা

সোনারগাঁ প্রতিনিধিঃ সোনারগাঁয়ের পিরোজপুর ইউনিয়নের আষাঢ়িয়ার চর এলাকায় আওয়ামী লীগ ও বিএনপির সংঘর্ষের ঘটনায় আওয়ামী লীগের পক্ষে মামলা করা হয়েছে।

বৃহস্পতিবার (১৭ নভেম্বর) বিকেলে মেঘনা শিল্পাঞ্চল শ্রমিক লীগের যুগ্ম আহ্বায়ক আব্দুল হালিম বাদি হয়ে মামলা দায়ের করেন।

মামলায় আসামি করা হয় সোনারগাঁ উপজেলা যুবদলের সাবেক সাধারণ সম্পাদক আব্দুর রউফ ও তার ছোট ভাই পিরোজপুর ইউনিয়ন বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুল জলিলসহ প্রায় ১৫ জনকে।

এর আগে বুধবার (১২ নভেম্বর) রাতে উভয় পক্ষের সংঘর্ষে ৭ জন আহত হয়। আহতদের ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালসহ বিভিন্ন ক্লিনিকে ভর্তি করা হয়। সংঘর্ষে ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের কার্যালয় ভাংচুরের অভিযোগ তোলা হয়।

জানা যায়, উপজেলার পিরোজপুর ইউনিয়নের আষাঢ়িয়ার চর এলাকায় শ্রমিকলীগ নেতা আব্দুল হালিম ও উপজেলা যুবদলের সাবেক সাধারণ সম্পাদক আব্দুর রউফের মধ্যে স্থানীয় নিরীহ কৃষকের জমি কোম্পানির দখলকে কেন্দ্র করে বিরোধ চলছিল। এ বিরোধে একাধিকবার সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। গত বুধবার রাতে উভয় পক্ষের সমর্থকদের মধ্যে আধিপত্য বিস্তারে দু’পক্ষের মধ্যে ব্যাপক সংঘর্ষ, হামলা ও  ভাংচুরের ঘটনা ঘটে। সংঘর্ষে পিরোজপুর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের ৬নং ওয়ার্ডের কার্যালয় হামলা চালিয়ে কার্যালয়ের ভেতরে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ছবিসহ বিভিন্ন আসবাবপত্র ভাংচুর করা হয়। সংঘর্ষে উভয় পক্ষের ইমন মিয়া, আরিফ হোসেন, মেহেদী হাসান, বাবুল মিয়া, সবুর খান, আব্দুল জলিলসহ ৭ জন আহত হয়।

মেঘনা শিল্পাঞ্চল শ্রমিক লীগের যুগ্ম আহবায়ক আব্দুল হালিমের অভিযোগ, বিএনপি নেতা আব্দুর রউফের লোকজন তার সমর্থকদের ওপর হামলা চালিয়ে আওয়ামী লীগ কার্যালয় ভাংচুর করে। গত ১১ নভেম্বর ঢাকায় যুবলীগের মহাসমাবেশে আমাদের এলাকা থেকে বিপুল সংখ্যক আওয়ামী লীগের নেতাকর্মী ও সমর্থকরা অংশ নেয়। তারপর থেকেই সাধারণ সমর্থকদের সঙ্গে দেখা হলে বিএনপি নেতারা হুমকি ধামকি দিয়ে আসছে।

সোনারগাঁ উপজেলা যুবদলের সাবেক সাধারণ সম্পাদক আব্দুর রউফ জানান, আওয়ামী লীগ কার্যালয় ভাংচুরের ঘটনায় তাদের লোকজন জড়িত নয়। একটি কোম্পানিকে হালিম মেম্বার সাধারণ কৃষকের জমি দখলকে কেন্দ্র করে তাদের সঙ্গে দ্বন্ধ শুরু হয়। এ দ্বন্ধকে স্বার্থের জন্য রাজনীতিতে জড়িয়েছে। নিজেরাই তাদের কার্যালয় ভাংচুর করে আমাদের মামলা দিয়ে ফাঁসানোর চেষ্টা করছে। হালিম মেম্বার আমাদের ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে হামলা চালিয়ে লোকজনকে আহত করেছে।

সোনারগাঁ থানার পরিদর্শক (তদন্ত) মোহাম্মদ আহসানউল্লাহ বলেন, আওয়ামী লীগ-বিএনপি সংঘর্ষের ঘটনায় আওয়ামী লীগের পক্ষের মামলা নেওয়া হয়েছে। অন্য পক্ষের কেউ থানায় অভিযোগ দায়ের করেনি।

নিউজটি শেয়ার করুন...

আপনার মতামত লিখুন........


© All rights reserved © 2018 Alokitonarayanganj24.net
Design & Developed by M Host BD
error: দুঃখিত রাইট ক্লিক গ্রহনযোগ্য নয় !!!