সোমবার, ০৩ অক্টোবর ২০২২, ০১:৪৮ অপরাহ্ন

স্কুলশিক্ষিকাকে অপহরণের পর নির্যাতন!

রূপগঞ্জে গার্মেন্টকর্মী গণধর্ষণের শিকার

আলোকিত নারায়ণগঞ্জঃ রূপগঞ্জে পুলিশ পরিচয়ে অপহরণের পর অজ্ঞাত স্থানে নিয়ে জলন্ত কয়েলের ছ্যাকাসহ পাশবিক নির্যাতন করেছে বলে অভিযোগ করেছেন তাজরিনা আক্তার নামে এক স্কুলশিক্ষিকা। শুধু তাই নয়, অপহরণকারীরা ওই শিক্ষিকার শ্লীলতাহানিরও চেষ্টা করে বলে অভিযোগ করেছেন তিনি।

তার দাবি, রোববার (১৮ সেপ্টেম্বর) বিওকলে উপজেলার ভুলতা গাউছিয়া মার্কেট এলাকা থেকে তাকে অপহরণের পর এ নির্যাতন করা হয়। সোমবার (১৯ সেপ্টেম্বর) এ ঘটনায় তিনি নিজে বাদী হয়ে রূপগঞ্জ থানায় একটি অভিযোগ করেছেন।

তাজরিনা আক্তার উপজেলার আউখাবো এলাকার রবিউল ইসলামের মেয়ে, স্থানীয় একটি কিন্ডার গার্টেন মডেল স্কুলে চাকরি করেন।

তিনি জানান, তার আড়াইহাজার উপজেলার লস্করদি এলাকার হিমেল নামে এক যুবকের সঙ্গে পরিচয় হয়। পরে হিমেলের কাছ থেকে ১০ হাজার টাকা ধার নেন। সম্প্রতি হিমেল হঠাৎ করেই তাকে টাকার জন্য চাপ দেন। রোববার বিকেলে হিমেল টাকার বিষয়ে কথা বলতে তাকে গাউছিয়া মার্কেট এলাকায় আসতে বলেন। তিনি সেখানে পৌঁছানো মাত্রই হিমেলের চাচাত ভাই খায়রুল ইসলামসহ পুলিশ পরিচয়দানকারী সুমন ও কাউসার মিয়া তাকে সাদা রঙয়ের একটি প্রাইভেটকারে উঠিয়ে লস্করদি এলাকার অজ্ঞাত স্থানে নিয়ে যায়। সেখানে হিমেল প্রথমে তাকে চড়থাপ্পড় মারে আর বলে টাকা এখনই দিবি, না হয় ইজ্জত দিবি বলেই শ্লীলতাহানির চেষ্টা করে।

তিনি আরও জানান, এক পর্যায়ে পুলিশ পরিচয় দানকারী সুমন তার শরীরের জলন্ত কয়েলের ছ্যাকা দিতে থাকে আর কাউসার চড়থাপ্পড় মারতে থাকে। পরে তিনি আত্মরক্ষার জন্য চিৎকার শুরু করলে আশপাশের লোকজন এগিয়ে আসেন। এ সময় অপহরণকারীরা পালিয়ে যায় এবং স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে।

এ বিষয়ে জানতে অভিযুক্ত হিমেলের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি অভিযোগটি সত্য নয় বলে দাবি করেন। বলেন, তাদের ফাঁসানোর জন্য তাজরিনা নাটক সাজিয়েছেন।

এ ব্যাপারে রূপগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এএফএম সায়েদ বলেন, এ ধরনের একটি অভিযোগ পেয়েছি। তদন্ত করে আইনি ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

নিউজটি শেয়ার করুন...

আপনার মতামত লিখুন........


© All rights reserved © 2018 Alokitonarayanganj24.net
Design & Developed by M Host BD
error: দুঃখিত রাইট ক্লিক গ্রহনযোগ্য নয় !!!