রবিবার, ২৯ নভেম্বর ২০২০, ১২:৫৬ পূর্বাহ্ন

স্টিল মিলে বিস্ফোরণ: দুই ব্যবস্থাপকসহ ৪ কর্মকর্তা গ্রেফতার

রূপগঞ্জে স্টিল মিলে দুর্ঘটনায় ৬ শ্রমিক দগ্ধ

আলোকিত নারায়ণগঞ্জঃ রূপগঞ্জে প্রিমিয়ার স্টিল অ্যান্ড রি-রোলিং মিলে লোহা গলানোর পাত্র বিস্ফোরণের ঘটনায় কারখানা কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে অবহেলা ও অব্যবস্থাপনার অভিযোগ  মামলা করার পর দুই ব্যবস্থাপকসহ ৪ কর্মকর্তা গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

শনিবার (২৪ অক্টোবর) বিস্ফোরণে নিহত ফাহিমের ভাই মাহিম বাদি হয়ে অজ্ঞাত কয়েকজনকে অভিযুক্ত করে মামলা করেন। পরে পুলিশ প্রিমিয়ার স্টিল অ্যান্ড রি-রোলিং মিলের জেনারেল ম্যানেজার, প্রোডাকশন ম্যানেজার ও দুই সুপারভাইজারকে গ্রেফতার করেছে।

গ্রেফতারের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন রূপগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মাহমুদুল হাসান।

তিনি জানান, নিহত শ্রমিক ফাহিমের ভাই মাহিম অজ্ঞাতনামা কয়েকজনকে অভিযুক্ত করে একটি মামলা দায়ের করেছেন। সেই মামলায় প্রিমিয়ার স্টিল মিলের জেনারেল ম্যানেজার, প্রোডাকশন ম্যানেজার ও দুই সুপারভাইজারকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

তিনি আরো বলেন, দুর্ঘটনার পর আমরা ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে শ্রমিকদের সঙ্গে কথা বলেছি। কর্তৃপক্ষের অব্যবস্থাপনার কারণে ঘটনাটি ঘটেছে বলে আমাদের তদন্তে সত্যতা পাওয়া গেছে। অজ্ঞাতদের আসামি করা হলেও এ মামলায় কারখানার জেনারেল ম্যানেজার, প্রোডাকশন ম্যানেজার ও দুই সুপারভাইজারকে গ্রেফতার করে সাত দিনের রিমান্ডের আবেদন করে আদালতে পাঠানো হয়েছে। আদালত রিমান্ড আবেদনের শুনানি রোববার ধার্য করেছেন।

গত বৃহস্পতিবার দিনগত রাত আড়াইটায় রূপগঞ্জ উপজেলার বরপা এলাকায় লোহা প্রস্তুতকারক কারখানা প্রিমিয়ার স্টিল অ্যান্ড রি-রোলিং মিলের (পিএসআরএম) লোহা গলানোর পাত্র ভাট্টির বিস্ফোরণ ঘটে। গলিত লোহা গায়ে পড়ে গুরুতর দগ্ধ হন ছয় শ্রমিক। তাদের মধ্যে একজন ঘটনাস্থলেই মারা যান। শেখ হাসিনা জাতীয় বার্ন অ্যান্ড প্লাস্টিক সার্জারি ইনস্টিটিউটে চিকিৎসাধীন অবস্থায় বৃহস্পতিবার ভোর থেকে শনিবার সকাল পর্যন্ত চার শ্রমিকের মৃত্যু হয়েছে।

নিহত শ্রমিকরা হলেন- চুয়াডাঙ্গা জেলা সদরের আলোদিয়ার বাজার এলাকার শাহজাহান মিয়ার ছেলে মিজানুর রহমান (৪২), ফাহিম (২৫), লালমনিরহাটের পাটগ্রাম উপজেলার বাংলাবাড়ী এলাকার আব্দুস সোবহানের ছেলে মো. শাকিল (২০) ও কুড়িগ্রামের নাগেশ্বরী এলাকার টিপু শেখের ছেলে আবু সিদ্দিক (৩০)।

এছাড়া দগ্ধ হওয়া দুই শ্রমিক লালমনিরহাটের পাটগ্রাম উপজেলার বাংলাবাড়ী এলাকার বাউরা এলাকার সুন্দর আলীর ছেলে রফিক মিয়া (৪৫) এবং রহমতপুর এলাকার রিয়াজ উদ্দিনের ছেলে মো. রাজু (৪০) রাজধানীর বেসরকারি একটি হাসপাতালে এখনো চিকিৎসাধীন আছে। তাদের মধ্যে রাজুর অবস্থা আশংকাজনক বলে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে।

নিউজটি শেয়ার করুন...

আপনার মতামত লিখুন........


© All rights reserved © 2018 Alokitonarayanganj24.net
Design & Developed by M Host BD
error: দুঃখিত রাইট ক্লিক গ্রহনযোগ্য নয় !!!