রবিবার, ২৯ নভেম্বর ২০২০, ১২:৫০ পূর্বাহ্ন

স্ত্রীকে ধারালো বটি দিয়ে গলা কেটে হত্যার দায় স্বীকার ২ বছর পর

আলোকিত নারায়ণগঞ্জঃশামীমের সাথে শিউলীর বিয়ে হয়েছিল। কিন্তু সেই বিয়ের সময় বছরতো দূরের কথা, মাসও গড়ায়নি। বিয়ের ৭দিনের মাথায় স্ত্রীকে ধারালো বটি দিয়ে গলা কেটে হত্যা করেছিল স্বামী। ঘটনার ২ বছর পর আদালতে নিজের দায় স্বীকার করে ১৬৪ জবানবন্দী দিয়েছেন।

রবিবার (২৫ অক্টোবর) বিকেলে নারায়ণগঞ্জের সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মো. মিল্টন হোসেনের কাছে ১৬৪ ধারায় জবানবন্দী প্রদান করেছেন শামীম। ২০১৮ সালের ২৩ আগস্ট নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জের পাঁচাইখা এলাকার শামীমের সাথে বিয়ে হয়েছিল শিউলীর। ৩১ আগস্ট নববধূকে গলাকেটে হত্যা করেছিল স্বামী। এ ঘটনার নিহতের মা বাদী হয়ে রুপগঞ্জ থানায় ১ সেপ্টেম্বর থানায় একটি মামলা দায়ের করেছিল।

জবানবন্দির বিষয়টি নিশ্চিত কোর্ট পুলিশ এএস আই ইসমাইল গণমাধ্যমকে বলেন, আসামি গ্রেপ্তারের পর সে জেল হাজতে ছিল। চলতি মাসের ১৯ অক্টোবর পিবিআইয়ের কাছে মামলাটির তদন্তভার দেয়া হয়। তদন্ত কর্মকর্তা আসামি শামীমের ৩দিনের রিমান্ডের আবেদন করেন। পরে শুনানি শেষে আদালত ২ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন আদালত। রিমান্ড শেষে আসামি আজ আদালতে ১৬৪ ধারা জবানবন্দি প্রদান করে হত্যার দায় স্বীকার করেছে।

সূত্র জানায়, ২০১৮ সালের ২৩ আগস্ট শামীমের সাথে বিয়ে হয়েছিল শিউলীর। বিয়ের আগে শিউলির সাথে এক যুবকের প্রেমের সম্পর্ক ছিল। বিয়ের দিন থেকেই এ বিষয় নিয়ে স্ত্রীর সাথে তার মনোমালিন্য শুরু হয়। বিয়ের এক সপ্তাহের মধ্যে উভয়ের মধ্যে বেশ কয়েকবার ঝগড়াও হয়। এক পর্যায়ে শামীম তার স্ত্রীকে হত্যার সিদ্ধান্ত নেয়। সেই পরিকল্পনা মতো ৩১ আগস্ট রাতে ঘুমন্ত অবস্থায় খাটের নীচে থাকা ধারালো বটি দিয়েই স্ত্রীকে নির্মমভাবে হত্যা করে।

আদালত সূত্র জানায়, ২০১৮ সালে ৩১ আগস্ট হত্যাকাণ্ডের পর একই বছরের ১ নভেম্বর হত্যার অভিযোগ এনে নিহত শিউলী আক্তারের মা আমেনা বেগম বাদী হয়ে একটি থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। মামলা দায়েরের পর শামীমকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। অধিকতর তদন্তের স্বার্থে ২ দিনের রিমান্ডেও নিয়েছিল পুলিশ। তারপর ২০১৯ সালের ২৭ সেপ্টেম্বর পুলিশ পুনরায় ৩ দিনের রিমান্ড আবেদন করেছিল। আদালত এ মামলাটি শেষ পর্যন্ত পিবিআইকে তদন্ত দিলে, পিবিআই আসামির ৩দিনের রিমান্ডের আবেদন করেন। শুনানি শেষে আদালত ২ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করে। রিমান্ড শেষে ২৫ অক্টোবর আদালতে শামীম তার স্ত্রী হত্যাকাণ্ডের দায় স্বীকার করে ১৬৪ ধারায় জবানবন্দি প্রদান করেন.

নারায়ণগঞ্জ জেলার পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন’র পুলিশ পরিদর্শক এসআই মনিরুল ইসলাম বলেন, মামলা দায়েরের পর রূপগঞ্জ থানার তদন্ত কর্মকর্তা বিভিন্ন সময় রিমান্ডে নিয়ে হত্যাকাণ্ডের বিষয়ে জানার চেষ্টা করেছে। কিন্তু আসামি স্বীকারোক্তি দেয়নি। বিজ্ঞ আদালত গত সেপ্টেম্বর মাসে জেলা পিবিআইকে তদন্তের নির্দেশ প্রদান করেন। আসামি শামীম তার নববধূ শিউলীকে বটি দিয়ে গলা কেটে হত্যা করেছিল বলে রিমান্ড শেষে, ঘটনার ২ বছর পর আদালতে ১৬৪ ধারায় জবানবন্দী দিয়েছেন।

নিউজটি শেয়ার করুন...

আপনার মতামত লিখুন........


© All rights reserved © 2018 Alokitonarayanganj24.net
Design & Developed by M Host BD
error: দুঃখিত রাইট ক্লিক গ্রহনযোগ্য নয় !!!