মঙ্গলবার, ২৯ নভেম্বর ২০২২, ০৬:১৪ অপরাহ্ন

২৫ বছরের পর আজ কাঙ্খিত সম্মেলন!

বিশেষ প্রতিনিধিঃ দীর্ঘ ২৫ বছর পর আজ নারায়ণগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগের সম্মেলন অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে। রোববার (২৩ অক্টোবর) দুপুর ২টা থেকে এ সম্মেলন শুরু হবে। এরই মধ্যে শহরের ইসদাইর এলাকার ওসমান পৌর স্টেডিয়ামে মঞ্চ প্রস্তুত করা হয়েছে। ব্যানার ফেস্টুনে ছেয়ে গেছে পুরো এলাকা। নেতাকর্মীদের মধ্যে উচ্ছ্বাস আনন্দ বিরাজ করছে সম্মেলন ঘিরে। তবে কে আসছেন নতুন কমিটিতে তা নিয়ে চলছে নানা আলোচনা। দুই ধারায় বিভক্ত বর্তমান কমিটির সবচেয়ে বড় ব্যর্থতা হচ্ছে ৫ বছরেও  তারা শূন্য ৬টি পদ পূরণ করতে পারেননি। এ নিয়ে মাঠ পর্যায়ের নেতাকর্মী ও সমর্থকদের কাছে প্রশ্নবিদ্ধ হয়ে আছে আব্দুল হাই ও ভিপি বাদলের নেতৃত্বাধীন জেলা আওয়ামী লীগ।

এদিকে সম্মেলন ঘিরে পদ প্রত্যাশী নেতারা কেন্দ্রীয় নেতাদের আস্থা অর্জনের প্রচেষ্টা চালিয়েছেন সাধ্যমতো। জেলা আওয়ামী লীগের সম্মেলনকে কেন্দ্র করে সভাপতি পদে আলোচনায় রয়েছেন নারায়ণগঞ্জ-৪ আসনের সংসদ সদস্য শামীম ওসমান, নারায়ণগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগের বর্তমান সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা আবদুল হাই। সাধারণ সম্পাদক পদে আলোচনা রয়েছেন নারায়ণগঞ্জ-২ আসনের সংসদ সদস্য নজরুল ইসলাম বাবু, জেলা আওয়ামী লীগের বর্তমান সাধারণ সম্পাদক এডভোকেট আবু হাসনাত মো. শহীদ বাদল ও আওয়ামী লীগের জাতীয় পরিষদের সদস্য এডভোকেট আনিসুর রহমান দীপু। জানা গেছে, নারায়ণগঞ্জ জেলার সর্বশেষ কাউন্সিল হয় ১৯৯৭ সালের ২০শে ডিসেম্বর। অধ্যাপিকা নাজমা রহমান সভাপতি ও এমপি শামীম ওসমান সাধারণ সম্পাদক হয়েছিলেন। এর পর ২০০২ সালের ২৭শে মার্চ নারায়ণগঞ্জ-৫ (সদর-বন্দর) আসনের সাবেক সংসদ সদস্য এস এম আকরামকে আহ্বায়ক করে কেন্দ্র থেকে ৬১ সদস্যের একটি আহ্বায়ক কমিটি করে দেয়া হয় পরে ২০১১ সালে নাসিক নির্বাচনের পর আকস্মিকভাবে আহ্বায়কের পদ থেকে এস এম আকরাম পদত্যাগ করে যুক্ত হন নাগরিক ঐক্যের সঙ্গে। পরে ভারপ্রাপ্ত আহ্বায়ক করা হয় যুগ্ম আহ্বায়ক মফিজুল ইসলামকে। কিন্তু ২০১৪ সালের ১১ই ফেব্রুয়ারি মফিজুল ইসলাম মারা যান। ২০১৬ সালের ৯ই অক্টোবর নারায়ণগঞ্জ জেলা পরিষদের তাৎকালীন প্রশাসক বীর মুক্তিযোদ্ধা আবদুল হাইকে সভাপতি এবং সিটি করপোরেশনের বর্তমান মেয়র ডা. সেলিনা হায়াৎ আইভীকে সিনিয়র সহ-সভাপতি ও এডভোকেট আবু হাসনাত মো. শহীদ বাদলকে সাধারণ সম্পাদক করে ৩ সদস্যবিশিষ্ট জেলা আওয়ামী লীগের আংশিক কমিটি ঘোষণা করে কেন্দ্র। এর ১৩ মাস পর ২০১৭ সালের ২৫শে নভেম্বর ৬টি পদ শূন্য রেখে নারায়ণগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগের ৭৪ সদস্যের পূর্ণাঙ্গ কমিটি অনুমোদন দেয় কেন্দ্র। কিন্তু ৫ বছরেও পূরণ হয়নি শূন্যপদগুলো। তাই আগামী সম্মেলনের মাধ্যমে নতুন নেতৃত্ব সৃষ্টি হবে এবং দল সাংগঠনিকভাবে শক্তিশালী হবে এমন প্রত্যাশা সংগঠনটির নেতাকর্মীদের।

জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা আবদুল হাই বলেন, এবারের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলনের প্রস্তুতি আগের সম্মেলনগুলোর চেয়ে অনেক ভালো। সাংগঠনিকভাবেও আমরা আগের চেয়ে ভালো অবস্থায় আছি। আমাদের নেত্রী শেখ হাসিনা যাকেই সভাপতি-সাধারণ সম্পাদক বানাবেন, তাদের নেতৃত্বেই আমরা কাজ করবো।

নিউজটি শেয়ার করুন...

আপনার মতামত লিখুন........


© All rights reserved © 2018 Alokitonarayanganj24.net
Design & Developed by M Host BD
error: দুঃখিত রাইট ক্লিক গ্রহনযোগ্য নয় !!!